সাম্প্রতিক কালে কাজের চাপে আমার Multiplex এ গিয়ে সিনেমা দেখার সুযোগ খুব একটা হয়ে উঠে না। যাইহোক গত উইকএন্ডে “102 NOT OUT “সিনেমাটি দেখার পর  নিজের মনের ভাব প্রকাশ করার,নিজের অভিজ্ঞতা সকলের সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার লোভ সামলাতে পারি নি। সেজন্য কয়েক কথা লিখবার জন্য আজ কলম ধরেছি।

“102 NOT OUT” সিনেমাটির trailer দেখার পর থেকেই আমি সিনেমাটি দেখার জন্য উদগ্রীব হয়েছিলাম। একেই তো শতাব্দীর মহানায়ক অমিতাভ বচ্চন বলে কথা,যিনি দীর্ঘ কয়েক দশক যাবৎ আট থেকে আশি সবাইকে মন্ত্রমুগ্ধ করে রেখেছেন,সেইসঙ্গে উপরি পাওনা হিসাবে ঋষি কাপুর কে  বড় পর্দায় একসঙ্গে দেখা তো লটারি তে টাকা জেতারই সামিল। একসময় এই জুটি কতই না সুপারহিট ফিলম্ আমাদের উপহার দিয়েছে।’কভি কভি’,’নসিব’, ‘কুলি’….কাকে ছেড়ে কার  কথা বলব। সিনেমা হিট করানোর যেন অন্যতম Formulla হয়ে উঠেছিল এই জুটি। শেষবার ‘আজুবা’ সিনেমায় এই ক্যারিশমাটিক জুটিকে একসঙ্গে  দেখা গিয়েছিল।তারপর দীর্ঘ 27 বছরের অপেক্ষা।শেষপর্যন্ত এই অসাধ্য সাধন করেন প্রতিভাধর ‘Oh My God’ এর মতো সিনেমার পরিচালক উমেশ শুক্লা।তাই প্রত্যাশার পারদ যে চড়বেই তাতে আর কি সন্দেহ আছে।

সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় শো। আমার বাড়ি থেকে গন্তব্যস্তল 20 মিনিটের রাস্তা।আমি  যখন বাড়ি থেকে বের হই তখন ঘড়িতে ছয়টা বাজতে মিনিট চারেক বাকি।ছুটির দিনে ভিড় কম থাকায় ছয়টা কুড়ি এর মধ্যে হলে পৌঁছে গেলাম,তড়িঘড়ি করে টিকিট নিয়ে যখন থিয়েটারে ঢুকলাম তখন দেখলাম থিয়েটার ‘হাউসফুল’।সিনেমাটি প্রায় এক মাস আগে মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু থিয়েটারে উৎসাহী, চলচ্চিত্রপ্রেমী দর্শকদের সর্নিবন্ধ উপস্থিতি আমার মনে ‘ফাস্ট ডে ফাস্ট শো’ এর অনুভূতি সৃষ্টি করছিল।রিলিজ এর মাসাধিক কাল পরও এই জনঢল আমার উৎসাহকে বহুগুণে বাড়িয়ে দিল।

সিনেমাটি নিয়ে কথা বলতে গেলে একটিই কথা বলা যায় “YO”। কি অভিনব কাহিনি,কি অসাধারন পরিচালনা এবং সর্বোপরি কি দুরন্ত অভিনয়…..সিনেমাটির প্রশংসায় যেন বিশেষণের রাজভাণ্ডারেও টান পড়ে।দুই বর্ষীয়ান অভিনেতার দাপুটে,মনভাল করা অভিনয় যেন দুটি ঘন্টা আমাদের সপনের রাজ্যে নিয়ে গিয়েছিল। অমিতাভ বচ্চনের অভিনয় নিয়ে কথা বলা ‘বামন হয়ে চাঁদে হাত দেওয়ারই’ সমান। এই ধরনের ব্যাতিক্রমি চরিত্র বড় পর্দায় বাস্তবায়নে তার জুড়ি মেলা সত্যিই ভার। কিন্তু বাবুলাল বাখারিয়া চরিএে ঋষি কাপুরের অভিনয় সকলকে চমকে দিয়েছে।আমি কোনো চলচ্চিত্রের সমঝদার নই,কিন্তু একজন সিনেদর্শক হিসাবে আমার মতে ঋষি কাপুরের অভিনয় কিছু কিছু সিনে একমেবাদ্বিতীয়ম্ অমিতাভ বচ্চনের অভিনয়কেও ছাপিয়ে গেছে। একটি সিনে দেখা যায় অমিতাভ বচ্চন গ্রামোফোনে “wakht ne kiya kya hasin sitam”গানটি বাজাচ্ছেন,যা আমাদের নষ্টালজিক করে দেয়।সর্বোপরি পরিচালক উমেশ শুক্লার  প্রশংসা করতেই হয়। ‘ওহ্ মাই গড’ এর পর আরও একটি দুরন্ত ছবি আমাদের প্রত্যাশার পারদকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।ভবিষ্যতেও আমরা তাঁর কাছ থেকে এরকম ছবি আশা করছি।

শেষপর্যন্ত এটাই বলতে পারি,আজকের দিনেও মানুষ ভালো সিনেমা,ভালো কাহিনির জন্য আতুর ; ‘102 NOT OUT’ তার জলজ্যান্ত প্রমাণ। সিনেমাটিরই একটি জনপ্রিয় গানের মাধ্যমেই আজকের লেখা শেষ করব “Badumbah! Badumbah!

 

~ 102 NOT OUT-এক অনন্য সাধারণ অভিজ্ঞতা ~
Print Friendly, PDF & Email
0 0 vote
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments