দুর্গা পুজো শেষ, মা লক্ষ্মী কেও বিদায় জানিয়ে এবার কালি পুজোর আয়োজন শুরু হয়েছে। রয়েগেছে শুধু ফেসবুক আর সঙ্গে কিছু পোস্ট করা ছবি, যাতে আবার অনেকজনকে ট্যাগ করা। সেলফী, গ্রুপফী তে ভরে গেছে হোম পেজ। একাদশ শতাব্দীতে যে কোন উৎসব-ই হয়ে উঠেছে ডিজিটাল। ছবি তুলেই সঙ্গে সঙ্গে পোস্ট করাটাই এখনকার ট্রেণ্ড। এ বছরও তার অন্যথা ঘটেনি।

পুজোর উদ্যোগতারাও এর সুযোগ নিয়েছেন এই বছরের পুজোয়। প্যান্ডেলে প্যান্ডেলে ওয়াই-ফাই পরিষেবা চালু করে দর্শনার্থীদের দৃস্টি আকর্ষণ করার অভিনব উপায় কলকাতা এবং কলকাতা সংলগ্ন হুগলি জেলার বিভিন্ন পুজো প্যান্ডেলে দেখা গেছে। মানুষের উপর ফেসবুক-এর এত প্রভাব দেখে পুজো উদ্যোগতারাও এটা কে নিজেদের পুজোর থিম হিসেবে বেছে নিয়েছেন বার বার। ২০১২ সালে বিরভূম জেলার শিউড়ী গ্রামে ও ২০১৪ সালে হুগলি জেলার এক ছোট্ট শহর শ্রীরামপুরে তার নিদর্শন দেখা গেছে।

পুজোয় ফেসবুক

পুজো শেষে শুভেচ্ছা-প্রণাম জানানো, এমনকি মিষ্টিমুখ! সবই এখন সেরে ফেলা যায় মাত্র একটা ক্লিকে। এমন যখন অবস্থা, তখন আর পঞ্চাশ বছর পর এমন একটা ফেসবুক স্ট্যাটাস আশা করা যেতেই পারে “পুজো এবার কাটবে একা, ডিজিটালী পাবো মা দুর্গার দেখা।”

 

~ পুজোয় ফেসবুক~

LEAVE A REPLY

*