আমি এক নদী , এই বেগ এই ধীর

বয়ে চলেছি যুগ থেকে যুগ

খুঁজে পাইনি আপন নীড় ।

আমি দেখেছি সবুজ পাহাড়ের বুকে

শাল সেগুনের সারি

উঠন পেড়িয়ে তুলসি তলায়

তোমার ছোট্ট বাড়ি ।

আমি শুনেছি , আকাশের কোলে আমার মাটির গান

দেখেছি নব বধূর সাজে রামধনু মেঘমান ।

সেখান থেকে আঁকা বাঁকা পথে

শহরে আমার আসা

ব্যস্ত শহরে জীবনের সুরে

ছড়িয়ে নতুন ভাষা ।

অলি গলি ঘুরে দুর থেকে দুরে

কুড়িয়ে কথার মালা

ঠিকানা বিহীন পথে আবার

আমার এগিয়ে চলা ।

কত সুখ দুখ , কত হাসি মুখ

কত স্মৃতি আমি ধরে

আমাতেই শুরু আমাতেই শেষ

এমন হাজার সুরে ।

জীবন কতো মধুর , কখনো

ঘনিয়ে কালের ছায়া

কখনো যেন ফেলে আসা পথ

নিছকই মহামায়া ।

আমি ও ভেবেছি বহুবার হোক

এখানেই চলার শেষ ।

এই সবুজে ছোট্ট আকাশে ,

যেথায় তারাদের সমাবেশ ।

আমি ও আমার সকল ধারার

করি অবসান ,

সকল ক্লান্তি ধুয়ে মুছে ফেলে

সাগরে করি স্নান ।

কিন্তু বিধি বারে বারে মোর

বদল করেছে পথ

যুগ থেকে যুগ অবিরাম চলি

যেন তার শপথ ।

 

~ নদী ~

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

*