“এই তোর নাম কিরে ?”

পথে যেতে যেতে হটাৎ দাঁড়িয়ে

জিজ্ঞ্যেস করেছিল মেয়েটি।

কেমন যেন থতমত খেয়ে

ছেলেটি চুপ করে রইল কিছুক্ষন।

মেয়েটি বলল

“কি রে নাম ভুলে গেলি নাকি ?”

“না না নাম ভুলব কেন ?”

“তাহলে চুপ করে আছিস কেন ?”

“ভাবছি —–“

“কি ভাবছিস ?”

“ভাবছি তুই আমার সাথে

কি করে কথা বললি ?”

“কেন —-?

আমি কি কথা বলতে পারিনা ?

নাকি আমি কোন ভুত, পেত্নি ?”

“না না তা কেন হতে যাবে

আমি ভাবলাম তুই এত সুন্দরী,

শুনেছি সুন্দরী মেয়েরা

ছেলেদের পাত্তাই দেয় না।

আর তুই আমার সাথে কথা বললি !

তাই একটু অবাক হয়েছিলাম”।

“আচ্ছা ছাড় সেসব কথা

আমি দেখেছি তুই আমাকে

রোজ লুকিয়ে লুকিয়ে দেখিস।

কেন দেখিস আমাকে ?

আমি সুন্দরী তাই ?”

“তোর থেকে সুন্দর মেয়ে কি

এ জগতে কম আছে ?”

“তাহলে ?

ভালবাসিস আমাকে ?”

ছেলেটি আবার থতমত খেয়ে গেল

চুপ করে রইল অনেক্ষন।

মেয়েটি বলল, “বুঝতে পেরেছি

তুই ভালবাসিস আমাকে

তাহলে বলিসনি কেন ?”

“ভয়ে—–“

“এই বৃষ্টি কি করছিস ওখানে ?”

মায়ের ডাকে মেয়েটি হড়বড়িয়ে বলল

“আজ চলি রে, পরে কথা বলব

মা ডাকছে।

ও হ্যাঁ, আর একটি কথা,”

“কি ?”

“আমিও ভালবাসি তোকে।

অনেক ভালবাসি ”।

~ আমিও ভালবাসি তোকে ~

LEAVE A REPLY